তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন ২০০৫ (সংশোধিত ২০১৩) অধিকতর সংশোধনে আপনার মতামত
ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্যের ব্যবহার নিয়ন্ত্রণের জন্য ‘ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইন ২০০৫’ করা হয়। পরে ২০১৩ সালে আইনটি সংশোধন করা হয়। কিন্তু তামাকের মত ক্ষতিকারক পণ্যের নিয়ন্ত্রনে এই আইনে অধিকতর সংশোধন প্রয়োজন । সংশোধনের বিষয়গুলো হল: পাবলিক প্লেস ও পাবলিক পরিবহনে ধূমপান নিষিদ্ধ করা, তামাকজাত দ্রব্যের বিজ্ঞাপন ও প্রচারণা নিষিদ্ধ করা, তামাক কোম্পানির পৃষ্ঠপোষকতা বন্ধ করা, খুচরা ও প্যাকেটবিহীন বিক্রি বন্ধ করা, সিগারেটের বিকল্প ই-সিগারেটও বন্ধ করা এবং তামাকজাত দ্রব্যের মোড়কে সচিত্র স্বাস্থ্য সতর্কবার্তার আকার বড় করা ও মুদ্রণ নিশ্চিত করা। ভবিষ্যৎ প্রজন্ম রক্ষার্থে তামাকের বিরুদ্ধে চলমান আন্দোলনকে আরো সুসংহত করতে এই বিষয়ে সচেতনতার পাশাপাশি সর্মথন প্রয়োজন রেয়েছে। এ বিষয়ে আপনার সমর্থনসহ মতামত লিখে পাঠান।

এই বিষয়ে বিস্তারিত জানতে এখানে দেয়া লিংকে ক্লিক করুন- https://unsy.org/policybrief/
Sign in to Google to save your progress. Learn more
Your Name (আপনার নাম) *
Mobile Number (মোবাইল নম্বর) *
উদাহরণ: 01711222333
District Name (আপনার জেলার নাম) *
যে সংসদ-সদস্যের কাছে এই আইন সংশোধনের বিষয়ে বলতে চান, তার নাম লিখুন।
* তাদের নাম জানার জন্য এই লিঙ্কে খুজতে পারেন: https://ourparliament.org/ourmp/
তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন সংশোধনে আপনার মতামত দিন।
ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্যের ব্যবহার নিয়ন্ত্রণের জন্য ‘ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইন ২০০৫’ করা হয়। পরে ২০১৩ সালে আইনটি সংশোধন করা হয়। কিন্তু তামাকের মত ক্ষতিকারক পণ্যের নিয়ন্ত্রনে এই আইনে অধিকতর সংশোধন প্রয়োজন । সংশোধনের বিষয়গুলো হল: পাবলিক প্লেস ও পাবলিক পরিবহনে ধূমপান নিষিদ্ধ করা, তামাকজাত দ্রব্যের বিজ্ঞাপন ও প্রচারণা নিষিদ্ধ করা, তামাক কোম্পানির পৃষ্ঠপোষকতা বন্ধ করা, খুচরা ও প্যাকেটবিহীন বিক্রি বন্ধ করা, সিগারেটের বিকল্প ই-সিগারেটও বন্ধ করা এবং তামাকজাত দ্রব্যের মোড়কে সচিত্র স্বাস্থ্য সতর্কবার্তার আকার বড় করা ও মুদ্রণ নিশ্চিত করা। ভবিষ্যৎ প্রজন্ম রক্ষার্থে তামাকের বিরুদ্ধে চলমান আন্দোলনকে আরো সুসংহত করতে এই বিষয়ে সচেতনতার পাশাপাশি সর্মথন প্রয়োজন রেয়েছে। এ বিষয়ে আপনার সমর্থনসহ মতামত লিখে পাঠান।
আপনি  কি চান আপনার এলাকার এমপি বিষয়টি সংসদে পেশ করুক? *
Submit
Clear form
Never submit passwords through Google Forms.
This content is neither created nor endorsed by Google. Report Abuse - Terms of Service - Privacy Policy