জয়নুলের চিত্রকর্ম

মাহমুদ শফিক তার জয়নুলের চিত্রকর্ম গ্রন্থে শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিনের জীবন বৃত্তান্ত ও চিত্রকর্মের স্বরূপ অন্বেষণ করেছেন। অধুনালুপ্ত সাপ্তাহিক বিচিত্রায় দেশ কাঁপানো প্রচ্ছদকাহিনী লিখে পাঠক সমাজে স্থায়ী আসন করে নেন তিনি। শত্রু কর্তৃক আক্রান্ত হন একাধিকবার। কিন্তু মাহমুদ শফিক সৎ ও নির্ভীক থেকে তিনি তার তথ্য ও মতামত প্রকাশ করে গেছেন। বহু গুরুত্বপূর্ণ পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন তিনি। এসব দায়িত্বের মধ্যে রয়েছে সাপ্তাহিক বিচিত্রার প্রধান প্রতিবেদক, দৈনিক বাংলার সাংস্কৃতিক বিভাগের সম্পাদক, সাপ্তাহিক প্রতিচিত্র/মাসিক গণস্বাস্থ্য পত্রিকার নিয়মিত প্রচ্ছদকাহিনী লেখক, জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের পরিচালক, বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের পরিচালক, ‘সোনারগাঁয়ে কারুশিল্প গ্রাম প্রকল্প’-এর প্রকল্প পরিচালক, বেসরকারি গ্রান্থাগার উন্নয়ন প্রকল্পের পরামর্শক ইত্যাদি। তিনি এদেশের একজন জনপ্রিয় কবি, সাংবাদিক ও গবেষক। মাহমুদ শফিক তার জয়নুলের চিত্রকর্ম গ্রন্থে তার শিল্পকর্মের তাত্ত্বিক বিশ্লেষণ করেছেন। মাহমুদ শফিকের সকল কাজই লেখা ও গবেষণা কর্মের সঙ্গে যুক্ত। লেখাই তার ধ্যান-জ্ঞান-জীবিকা। তিনি ‘মুভমেন্ট ফর ফেয়ার ইলেকশন’-এর প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক। বর্তমানে এই সংগঠনের সভাপতি।

মাহমুদ শফিক

জন্মতারিখ : ১লা সেপ্টেম্বর, ১৯৫৪, জন্মস্থান : নড়িয়া (নানা বাড়ি), নিজগ্রাম : মগর, উপজেলা : নড়িয়া, জেলা : শরিয়তপুর, বাবা : মরহুম দীল মোহাম্মদ, মা : মরহুমা সাকিনা বেগম, স্ত্রী : নাজমা শফিক, মেয়ে : কাশফিয়া শফিক মম

প্রথম প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ

ছবি প্রকাশিত হলে (১৯৭৩)

উল্লেখযোগ্য কাব্যগ্রন্থ

কোকিলের বাণিজ্য ভবন, ভেতরে নীরব যাত্রী, অন্ধ শিকারি, তৃষ্ণার ময়ূর আগুন, দহনের পিপাসা, বিদ্যুতে বাঁধা বুক, পুরোনো বাড়ির ছিন্ন নিনাদ

উল্লেখযোগ্য গবেষণাগ্রন্থ

বাংলাদেশের সাংবিধানিক ও রাজনৈতিক বিপর্যয়, গ্রামীণ ব্যাংক, পদচিহ্ন, গণহত্যা ১৯৭১, ক্ষমতার মূল্য, মনের মুক্তি, গণতন্ত্রের মৃত্যু, খালেদা জিয়ার উত্থান, আর্সেনিকের গণবিষক্রিয়া, ঢাকা নগরের পরিবেশ

উল্লেখযোগ্য প্রবন্ধগ্রন্থ

আহত গণতন্ত্র, গণতন্ত্রের জামা, দারিদ্র্য ও পরিবেশ, লোকসংস্কৃতি

ছড়াগ্রন্থ

মেঘের পেখম, পাতার নূপুর, রঙিন ডানা

গানের এ্যালবাম

বাইরে বৃষ্টি, হীরের আঙটি, একরাশ নীল

পুরস্কার

শ্রেষ্ঠ তরুণ কবির পুরস্কার (রেখায়ন) ১৯৭৩, কারিগর পত্রিকা পদক ১৯৯০, UNESCAP/FEJB  ১৯৯১ পুরস্কার, UNESCAP/FEJB  ১৯৯২ পুরস্কার, কবিতা ও আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদ সম্মাননা ১৯৯৮, দৈনিক মুক্তবার্তা সম্মাননা ২০০২, জাতীয় প্রেসক্লাব লেখক সম্মাননা ২০০৩, গ্রন্থমেলা সম্মাননা ২০০৪ জাতীয় প্রেসক্লাব, রিপোর্টার্স ইউনিটি সম্মাননা ২০০৫, নববর্ষ সম্মাননা ১৪১১ জাতীয় প্রেসক্লাব, জাতীয় প্রেসক্লাব লেখক সম্মাননা ২০০৮, জাতীয় প্রেসক্লাব লেখক সম্মাননা ২০০৯, কবিতাপত্রিকা পরিষদ সম্মাননা ২০১০।

মাহমুদ শফিক জাতীয় প্রেসক্লাবের স্থায়ী সদস্য, বাংলা একাডেমীর জীবন-সদস্য এবং সচেতন সাংবাদিকদের মুখপত্র ‘খোলা দরজা’র সম্পাদক। দেশের বহু বিখ্যাত কণ্ঠশিল্পী তার লেখা গানে কণ্ঠ দিয়েছেন। তিনি এদেশের একজন শীর্ষস্থানীয় কবি ও গীতিকার। একসময় বিটিভিতে তার উপস্থাপিত ও নির্দেশিত সংগীত বিষয়ক গবেষণামূলক ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘সংগীত বিচিত্রা’ ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করে। তিনি বহু সংগঠন প্রতিষ্ঠার সঙ্গে জড়িত। সনদপত্রে তার নাম মো. শফিক-উল-ইসলাম।